বোয়ালখালীতে ২২০ টাকার স্যাভলন বিক্রি হচ্ছে ৬৮০টাকায়

নিজস্ব প্রতিবেদক: চট্টগ্রামের বোয়ালখালী উপজেলাতে আজ শনিবার (২০ জুন) সকালে বিভিন্ন ঔষধদের দোকানে মোবাইল কোর্ট পরিচালনার করা হয়।

মোবাইল কোর্ট পরিচালনার সময় বিভিন্ন ফার্মেসীতে ডেটল, স্যাভলন আছে কিনা জানতে চাইলে জানান স্যাভলন, ডেটল নাই।
তাৎক্ষণিক হাসান নামে এক ক্রেতা হাসান অভিযোগের ভিত্তিতে ফুলতল বাজারের আল ফেসানী (রা) ফার্মেসীতে দেখা যায়, দোকানের পিছনে স্যাভলন মজুদ করে রেখে প্রতি লিটার বোতলের গায়ের মুল্য ছিড়ে ফেলে ২২০ টাকার স্যাভলন ৬৮০ টাকায় বিক্রয় করা হচ্ছে। এসময় মোবাইল কোর্ট ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইনে দোকানের মালিক নাসির উদ্দিনকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

এরপর ফুলতলার এলাকার গ্রামীন ডি সি ফার্মেসীতে ডেটল, স্যাভলন আছে কিনা জানতে চাইলে স্টক নাই বলে জানায়। পরে পুলিশ সদস্যরা কার্টুনের মধ্যে মজুদ করে রাখা স্যাভলনের বোতল উদ্ধার করে। সেখানেও ২২০ টাকার স্যাভলন ৬৮০-৭০০ টাকায় বিক্রি করার অভিযোগ পাওয়া গেলে ফার্মেসির মালিক মো. জাহাঙ্গীরকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।
উপজেলা প্রশাসনের মোবাইল কোর্ট পরে শাকপুরা বাজার, সিও অফিস, কানুনগোপাড়া এলাকায় বিভিন্ন ফার্মেসীতে চিকিৎসক এর ব্যবস্থাপত্রে এবং ক্যাশ মেমোর মাধ্যমে ঔষধ বিক্রি করা হচ্ছে কিনা মনিটরিং করেন। অল্প কয়েকটি ফার্মেসীতে চালু করলেও বেশিরভাগ ফার্মেসী সময় চাইলে ম্যাজিস্ট্রট ২ দিনের সময় দেন। ক্যাশ মেমো ছাড়া, সর্বোচ্চ খুচরা মূল্যের চেয়ে বেশি দামে এবং অবৈধ ঔষধ বিক্রি করলে ভবিষ্যতে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে হুশিয়ার করা হয়।

এ বিষয়ে ভ্রাম্যমাণ আদালতে নেতৃত্বদানকারী সহকারী কমিশনার ভূমি ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. মোজাম্মেল হক চৌধুরী বলেন, উপজেলার বেশ কয়েকজন পদস্থ কর্মকর্তা এবং তাদের পরিবার ‘করোনা’ ভাইরাস এ আক্রান্ত জেনে ঔষধ, নিত্য পন্যের মূল্য বৃদ্ধির অভিযোগ পাওয়া যাচ্ছিল। আজ শনিবার ফার্মেসী সমূহে নিয়মিত মনিটরিং করা হয়, নিত্যপণ্যসহ অন্যান্য বিষয়ে মোবাইল কোর্ট পরিচালিত হবে।

Loading...