চট্টগ্রামে হঠাৎ টেলিমেডিসিন সেবা বন্ধের রাখার ঘোষণা বিএমএ’র

নিজস্ব প্রতিবেদক: এবার খুলনায় ডা. রাকিব হত্যার প্রতিবাদে চট্টগ্রামে টেলিমেডিসিন সেবা বন্ধ রাখার ঘোষণা দিয়েছেন বাংলাদেশ মেডিক্যাল অ্যাসোসিয়েশন (বিএমএ) এক নেতা।

বৃহস্পতিবার (১৮ জুন) সকালে বিএমএ চট্টগ্রামের সাধারণ সম্পাদক ডা. মো. ফয়সল ইকবাল চৌধুরী ঘোষণা দেন।
ডা. ফয়সল ইকবাল চৌধুরী বলেন, ডা. রাকিব হত্যার প্রতিবাদে বিএমএ চট্টগ্রাম শাখার অধিকাংশ চিকিৎসক টেলিমেডিসিন সেবা দিতে অনিহা প্রকাশ করেছেন। আমাদের প্রায় ১৫০ জন সদস্য প্রতিদিন টেলিমেডিসিন সেবা দিয়ে আসছিলেন। তবে টেলিমেডিসিন সেবার জন্য বিকেল ৫টা থেকে সন্ধ্যা ৭টা পর্যন্ত সময় বেঁধে দেওয়া হলেও রোগীরা ২৪ ঘণ্টা ফোন করে।
তাছাড়া বর্তমানে সব হাসপাতালেই ফ্লু কর্নার চালু রয়েছে। সেখানে গেলেই সেবা মিলবে। তাই এখন টেলিমেডিসিন সেবার প্রয়োজন নেই।

অন্যদিকে, বিএমএ চট্টগ্রাম শাখার সভাপতি অধ্যাপক ডা. মো. মুজিবুল হক খান বলেন, ঝুঁকি নিয়ে চিকিৎসকরা সেবা দেওয়ার পরও যদি তারা জীবনের নিশ্চয়তা না পায় তাহলে বিষয়টি দুঃখজনক। আমরা জনগণকে সেবা দেবো আর জনগণ চিকিৎসদের গায়ে হাত তুলবে-এটা কোনোভাবে মেনে নেওয়া যায় না।
ডা. রাকিব হত্যার সঙ্গে যারা জড়িত তাদের আইনের আওতায় এনে বিচারের দাবি জানাচ্ছে বিএমএ চট্টগ্রাম শাখা।

চট্টগ্রামে টেলিমেডিসিন সেবা বন্ধ করা হয়েছে কিনা জানতে চাইলে তিনি বলেন, এই সেবা বন্ধের ব্যাপারে আমরা চিন্তা করছি। সবাই বসে একটা সিদ্ধান্ত দিতে হবে। ডা. ফয়সল ইকবাল চৌধুরীর দেওয়া ঘোষণার বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি এ ব্যাপারে অবগত নন বলে জানান।

প্রসঙ্গত, গত ২৯ মার্চ ডা. ফয়সল ইকবাল চৌধুরী এই টেলিমেডিসিন সেবা দেওয়ার কথা জানিয়ে জ্বর-সর্দি-কাশি-গলাব্যথা উপসর্গের রোগীদের ঘর থেকে বের না হওয়ার পরামর্শ দেন। হাসপাতাল অথবা চিকিৎসকের চেম্বারে না গিয়ে ঘরে বসে চিকিৎসাসেবা নেওয়ার অনুরোধ জানিয়ে তিনি বলেছিলেন, বিএমএ চট্টগ্রাম শাখা আপনার ঘরে থেকে চিকিৎসা সেবা নিশ্চিত করতে ‘জরুরি টেলিমেডিসিন সেবা’ চালু করেছে। এজন্য ১০৬ জন চিকিৎসকের নাম ও মুঠোফোন নম্বর দেওয়া হয় সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে। যদিও এ পর্যন্ত অনেক চিকিৎসাপ্রার্থী এসব মুঠোফোন নম্বরে যোগাযোগ করে কয়েকজন চিকিৎসকের সাড়া পাননি বলে অভিযোগ করেছেন।

Loading...